ভূরুঙ্গামারীতে মাদার ক্লিনিকে ভূল চিকিংসায় মৃত্যু

গত শুক্রবার (ডাঃ কণা) গাইনি বিশেষজ্ঞ জলিমা খাতুন (২৮) রোগীকে ভুল ভাবে জরায়ুতে দুই দুইবার অপারেশন করেন। এতে ইনফেকশন হয়ে রোগীর ব্যাপক ব্লাডিং শুরু হয়। রোগীর অবস্থা বেশি খারাপ দেখে রোগীর পরিবারের সদস্যরা যখন রংপুরে নেওয়ার প্রস্তুতি নেয় তখন ক্লিনিক এ কর্মরত ব্যাক্তিবর্গ বাধা সৃষ্টি করে এখানেই ভালো চিকিৎসা প্রদানের আশ্বস্ত করে। পরিশেষে রোগীর দুলাভাই আঃ গণি ও রোগীর বাবা আঃ জলিল রাগারাগি করে ক্লিনিক থেকে বের করে নিয়ে রংপুর প্রাইম মেডিকেল এ ভর্তি করান।








সেখানে রোগীর অস্বাবাভিক অবস্থা দেখে ডাঃ গণ আই,সি,ইউ তে ভর্তি করান। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধা ৬ টায় রোগীটির মৃত্যু হয়। মৃত্যুর সময় তার এক পুত্র সন্তান সহ দুই মেয়ে কে রেখে চিরবিদায় নেন।তার ছোট মেয়েটির বয়স দেড় বছর। লাশের পাশে বাচ্চাদের আকুতি আর মা মা বলে চিৎকার শুনে এমন কোন মানুষ ছিল না যে কান্না করেনি। রোগীর পরিবার কে ধামাচাপা দেওয়ার জন্য এক দল স্বার্থান্বেষী গুষ্টী তৎপর হয়েছে। অবিলম্বে মাদার ক্লিনিক এর মালিক, ডাঃ কণা সহ অভিযুক্ত সকল কে গ্রেফতার সহ ক্লিনিকের সকল কার্যক্রম বন্ধ ঘোষনার জোর দাবী জানাচ্ছি স্থানীয় প্রশাসন এর কাছে।








তার স্বামীর বাড়ি আঙ্গারিয়া পাড়, ভুরুঙ্গামারী, কুড়িগ্রাম।