কোরিয়ায় অনুষ্ঠিত বিশ্ব সাঁতারে পেছন থেকে দ্বিতীয় বাংলাদেশের জুয়েল

সাঁতার শেষে হয়তো আফগানিস্তানের হেদায়েতুল্লাহ নুরজাদকে বুকে জড়িয়ে ধন্যবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশের জুয়েল আহমেদ। না, জুয়েলের ইভেন্ট ১০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোকে হেদায়েতুল্লাহ পদক জেতেননি।

এ আফগান সাঁতারু সবার পেছনে পড়ে মান বাঁচিয়েছেন জুয়েলের। না হলে বাংলাদেশের সাঁতারুর যে অবস্থান হতো পেছন থেকে প্রথমে। অর্থাৎ এ ইভেন্টে অংশ নেয়া ৬৩ জনের মধ্যে সবার শেষে।








দক্ষিণ কোরিয়ার গুয়াংজু শহরে চলমান ফিনা ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে রোববার ১০০ মিটার ব্রেস্ট স্ট্রোকে আরিফুল ইসলাম ৮৭ জনের মধ্যে হয়েছেন ৭৮ তম। সোমবার আরিফুলের চেয়েও বেশি ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছেন জুয়েল আহমেদ। ৬৩ জন সাঁতারুর মধ্যে হয়েছেন ৬২ তম।








এক নম্বর হিটে সাঁতরিয়েছেন জুয়েল আহমেদ। এই হিটে ছিলেন ৪ জন। ১:০৫,০০ মিনিট সময় নিয়ে জুয়েল হয়েছেন তৃতীয়। তার পেছনে ছিলেন আফগানিস্তানের হেদায়েতুল্লাহ। সব হিট মিলিয়ে ৬৩ জনের মধ্যে এই দুই জনই সবার পেছনে। জুয়েল ৬২ তম, হেদায়েতুল্লাহ ৬৩ তম।








জুয়েল ঘরোয়া প্রতিযোগিতায় এর চেয়ে ভালো টাইমিংয়ে সাঁতরান। এ বছরের শুরুর দিকে জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে করা টাইমিংও ধরে রাখতে পারেননি জুয়েল। তিনি প্রথম ৫০ মিটার অতিক্রম করেছিলেন ৩০.২৭ সেকেন্ডে। কিন্তু শেষ ৫০ মিটার যেতে সময় নিয়েছেন ৩৪.৭৩ সেকেন্ড।








এ চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নিতে যাওয়া একমাত্র নারী সাঁতারু জোনায়না আহমদে পুলে নামবেন বুধবার। তিনি ওই দিন অংশ নেবেন ২০০ মিটার বাটার ফ্লাইয়ে।